বুধবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২৪, ৪ বৈশাখ, ১৪৩১, ৭ শাওয়াল, ১৪৪৫

স্বাধীনতা সংগ্রামের অগ্রনায়ক মাণিক চৌধুরী : নাসিরুদ্দিন চৌধুরী

মাণিক চৌধুরী বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের মহান নায়ক। স্বাধীনতা সংগ্রামের স্মরণীয় ঘটনা তথাকথিত আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা। মাণিক চৌধুরীকে ওই মামলায় ১২নং আসামী করা হয়। স্বীকারোক্তি আদায় করার জন্য মাণিক চৌধুরীর ওপর পাকিস্তানের সামরিক গোয়েন্দা বাহিনী অমানুষিক নির্যাতন চালায়। ক্যান্টনমেন্টের বন্দিদশা থেকে মুক্তি লাভের পর তাঁকে ও বিধান কৃষ্ণ সেনকে পটিয়া থানার পাঁচরিয়া দিঘির পাড়ে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। সে সংবর্ধনা সভায় বক্তৃতায় মাণিক চৌধুরী যখন তাঁর ওপর নির্যাতনের বর্ণনা দিচ্ছিলেন, তখন মানুষ শিউড়ে উঠেছিলেন। সভায় উপস্থিত কোন কোন শ্রোতা-দর্শককে ডুকরে কেঁদে উঠেছিলেন। তিনি বলেছিলেন, তাঁকে বরফের মধ্যে শুইয়ে থাকতে বাধ্য করা হয়। বৈদ্যুতিক শক দেয়া হয় এবং তাঁর পায়ুপথে সেদ্ধ ডিম ঢুকিয়ে দেয়া হয়।
আমাদের স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাসে আগরতলা মামলার গুরুত্ব অপরিসীম। পাকিস্তান সরকার বঙ্গবন্ধু’র বিরুদ্ধে আগরতলা মামলা দায়ের করার পর থেকেই স্বাধীনতা সংগ্রাম চরম আকার ধারণ করে। বঙ্গবন্ধু ৬ দফা দেয়ার পর সরকার তাঁকে ‘দেশদ্রোহী’, ‘বিচ্ছিন্নতাবাদী’, ‘ভারতের দলাল’ হিসেবে চিহ্নিত করতে চাইলেও বাংলার মানুষ সরকারের কথায় বিশ্বাস করেনি। তারা এতদিন বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৬ দফা কর্মসূচির ভিত্তিতে আন্দোলন করে আসছিলো, এবার তার সঙ্গে যুক্ত হলো আর একটি দাবি, বন্দীমুক্তি ও আগরতলা মামলা বাতিলের দাবি। অতঃপর ৬ দফা বাস্তবায়ন ও আগরতলা মামলা বাতিলের দাবিতে দুর্বার আন্দোলন গড়ে উঠলে পাকিস্তানের তথাকথিত লৌহমানব প্রেসিডেন্ট ফিন্ড মর্শাল আইয়ুব খান পদত্যাগ করতে বাধ্য হন। বঙ্গবন্ধু, মাণিক চৌধুরীসহ সকল বন্দী মুক্তিলাভ করেন।
স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার জন্য বঙ্গবন্ধু নানাভাবে চেষ্টা চালিয়েছিলেন। তন্মধ্যে সর্বশেষ বৈপ্লবিক প্রচেষ্টা ছিলো পাকিস্তান সামরিক বাহিনীতে কর্মরত বাঙালি সামরিক অফিসার ও সৈন্যদের দিয়ে পূর্ব পাকিস্তানের সকল ক্যান্টনমেন্টে একযোগে অভ্যুত্থান ঘটিয়ে পূর্ব পাকিস্তানকে পাকিস্তান থেকে বিচ্ছিন্ন করে স্বাধীন করা। কিন্তু এই পরিকল্পনা পরিণতি লাভ করার পূর্বেই ফাঁস হয়ে যায়। তখন পাকিস্তান সরকার সংশ্লিষ্ট রাজনীতিক, সামরিক-বেসামরিক আমলা, ব্যবসায়ীসহ সামরিক বাহিনীর সদস্যদেরক একে একে গ্রেফতার করে তাদের বিরুদ্ধে যে মামলাটি দায়েল করে, সেটিই ইতিহাসে আগরতলা মামলা নামে পরিচিতি লাভ করে।
বঙ্গবন্ধুর উক্ত স্বাধীনতা প্রচেষ্টার মুখ্য ব্যক্তি ছিলেন মাণিক চৌধুরী। বঙ্গবন্ধু, পাকিস্তান নৌবাহিনীর বাঙালি কর্মকর্তা লে. কমান্ডার মোয়াজ্জেম হোসেনের পরই ছিলো মাণিক চৌধুরীর স্থান। প্রথমে মামলার নাম ছিলো ‘রাষ্ট্র বনাম শেখ মুজিব ও অন্যান্য’। বঙ্গবন্ধুকে ভারতের দালাল হিসেবে প্রতিপন্ন করার দুরভিসন্ধি থেকে পরে পাকিস্তান সরকার মামলার শিরোনামে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের রাজধানী আগরতলা’র নাম জুড়ে দিয়ে ‘আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা’ নামকরণ করে।
ভারতের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মাণিক চৌধুরীর সুসম্পর্ক ছিলো। তাঁর মধ্যস্থতায় ভারতের সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে ওঠে এবং মুক্তিযুদ্ধে ভারতে মুক্তিযোদ্ধাদের অস্ত্র ও ট্রেনিং প্রদান, প্রবাসী সরকার গঠন ও দাপ্তরিক কাজকর্ম পরিচালনা, সেক্টর সদর দপ্তর স্থাপন ও পরিচালনা এবং ১ কোটি শরণার্থীকে আশ্রয় প্রদান- এসব মাণিক চৌধুরীর কারণেই সম্ভব হয়েছিলো।
মাণিক চৌধুরীর প্রকৃত নাম ভূপতি ভূষণ চৌধুরী। তিনি পটিয়া উপজেলার গৌরব; শুধু পটিয়া নয়, চট্টগ্রাম জেলার গর্ব বললেও অত্যুক্তি হয় না।
১৯৩০ সালের ১৬ ডিসেম্বর পটিয়া থানার হাবিলাসদ্বীপ গ্রামে তাঁর জন্ম। তাঁর পিতার নাম ধীরেন্দ্র লাল চৌধুরী ও মাতার নাম যশোদা বালা চৌধুরী।
বাংলাদেশের প্রকৃত ইতিহাস কখনো রচিত হলে মাণিক চৌধুরী তাতে নিঃসন্দেহে একজন জাতীয় বীর হিসেবেই চিহ্নিত হবেন। উন্মেষ থেকে ধাপে ধাপে রক্তাক্ত আন্দোলনের সিঁড়ি বেয়ে যে স্বাধীনতা সংগ্রাম বিকশিত ও পুষ্ট হয়েছে তার কেন্দ্রে অবস্থান নিয়ে প্রস্ফুটিত হয়েছেন শেখ মুজিবুর রহমান-জাতির আকাক্সক্ষা ও স্বপ্ন চেতনায় ধারণ করে যিনি হয়ে ওঠেন জাতির সর্বশ্রেষ্ঠ প্রতিনিধি, জাতিসত্তার প্রতীক “বঙ্গবন্ধু”, “জাতির জনক”। গ্যালাক্সির এই উজ্জ্বলতম জ্যোতিষ্ককে ঘিরে ছোট বড় অনেক জ্যোতিষ্কের সমাবেশ ঘটেছিল। এই তারাম-লেরই এক প্রান্তে নীরবে নিভৃতে অবস্থান করেও যিনি স্বীয় প্রভায় সমুজ্জ্বল, আপন বিভূতির বিভায় জ্যোতির্ময় হয়ে আছেন, তিনি ঐ গ্যালাক্সিরই এক ‘মাণিক’, মাণিক চৌধুরী। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বের উত্থানপর্বে যাঁরা তাঁর ছায়াসঙ্গী ছিলেন মাণিক চৌধুরীকে দেখা গেছে তাদের অগ্রভাগে। বঙ্গবন্ধুর খুবই আস্থাভাজন ও প্রিয় মানুষ হয়ে উঠেছিলেন তিনি।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email
Share on print
Print

ফরিদপুরে যাত্রীবাহী বাস-পিকআপভ্যান সংঘর্ষ, নিহত ১৪

ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের ফরিদপুর কানাইপুরের তেতুলতলা নামক স্থানে বাস-পিকআপের মুখোমুখি সংঘর্ষে একই পরিবারের পাঁচজনসহ ১৪ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও তিনজন। তাদের ফরিদপুরের

বিস্তারিত »

যেমন থাকবে আগামী পাঁচ দিন তাপমাত্রা, জানালো আবহাওয়া অধিদপ্তর

সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। সোমবার (১৫ এপ্রিল) সকাল ৯ টা থেকে

বিস্তারিত »

‘নতুন বছর অপশক্তির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে প্রেরণা জোগাবে’

বাংলা নতুন বছর ১৪৩১ আমাদেরকে জঙ্গিবাদ, মৌলবাদ, উগ্রবাদ, সন্ত্রাসবাদ ও মুক্তিযুদ্ধবিরোধী অপশক্তির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে প্রেরণা জোগাবে বলে আশা ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা । রোববার

বিস্তারিত »

আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসে জনগণকে দিতে : শেখ হাসিনা

আওয়ামী লীগ দেশের জনগণকে কিছু দেয়ার জন্য ক্ষমতায় আসে বলে জানিয়েছেন দলটির সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সব সময় জনগণের পাশে

বিস্তারিত »

এলো খুশির ঈদ

আজ পবিত্র ঈদুল ফিতর। ৩০ দিনের সিয়াম সাধনার মাস পবিত্র রমজান শেষে শাওয়াল মাসের প্রথম দিন এলো খুশির ঈদ। হিংসা-বিদ্বেষ ভুলে সাম্য-সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠার বার্তা নিয়ে

বিস্তারিত »

যেখানে দেখা গেলো পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ

পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ প্রত্যক্ষ করলেন উত্তর আমেরিকার বাসিন্দারা। স্থানীয় সময় সোমবার অঞ্চলটির তিন দেশ যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা ও মেক্সিকো থেকে এই সূর্যগ্রহণ দেখা গেছে। একে ‘গ্রেট নর্থ

বিস্তারিত »

কেএনএফের প্রধান সমন্বয়ক চেওসিম বম গ্রেফতার

বান্দরবানের সশস্ত্র গোষ্ঠী কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) কেন্দ্রীয় কমিটির ‘অন্যতম প্রধান সমন্বয়ক’ চেওসিম বমকে (৫৫) গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। রোববার (৭ এপ্রিল) দুপুরে র‌্যাব-১৫

বিস্তারিত »

ভারতীয় পণ্য বর্জনের ডাকে বিএনপির নেতাকর্মীরাও সাড়া দেয়নি : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

পররাষ্ট্রমন্ত্রী, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিএনপিকে ধ্বংস করার জন্য তারেক জিয়াই যথেষ্ট, আর কাউকে লাগবে না। যতদিন তারেক জিয়া

বিস্তারিত »

চবির অধিভুক্ত হলো পাঁচ কলেজ

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) অধিভুক্ত হয়েছে চট্টগ্রামের স্বনামধন্য পাঁচটি কলেজ। একই সঙ্গে রাজশাহীর ৪টি কলেজকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৪ এপ্রিল) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক

বিস্তারিত »