সোমবার, ২০ মে, ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১, ১১ জিলকদ, ১৪৪৫

পেঁয়াজের ‘ঝাঁঝ’ বেড়েছে, খানিক স্বস্তি শাকসবজিতে

নতুন ধান উঠতে শুরু করলেও চালের দাম পড়ছে না; তেল, চিনির দামও অপরিবর্তিত।

কাঁচাবাজারে ক্রেতাদের পকেট খালি হওয়া যেন থামছেই না; একটি শেষ হতে না হতেই আরেক পণ্যের দাম বাড়ছে সেই ‘অজুহাত’ তুলে ধরেই। এবার পেঁয়াজের ঝাঁঝ টের পাচ্ছেন ছুটির দিনে ঢাকার বাজারে আসা ক্রেতারা।

মাঝে কিছুদিন স্থিতিশীল থাকার পর বাজারভেদে কেজিপ্রতি ৫ থেকে ১০ টাকা বাড়তি দাম নেওয়া হচ্ছে রান্নার অত্যাবশীয় এ পণ্যের। আগের মত বাড়তি দাম রসুনেরও, তবে ঝাঁঝ কিছুটা কমেছে আদার। মাঝে ২০০ টাকা পর্যন্ত ওঠা আদার কেজি এখন ১২০-১৩০ টাকা।

অন্যসব নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্যপণ্যের মধ্যে নতুন ধান উঠতে শুরু করলেও এখনও আগের মতই চালের দর বেশিই; আটা-ময়দা, চিনি, ডাল ও মাছ-মাংসের দামেও হেরফের নেই। বিভিন্ন জাতের মুরগির দামও অপরিবর্তিত রয়েছে। তবে সরবরাহ ভালো থাকায় নাগালের মধ্যে এসেছে শীতের নানা শাকসবজির দাম; আগের চেয়ে ব্যাগ ভরে ওঠায় এটাই সামান্য কিছু স্বস্তি দিচ্ছে সদাই করতে আসা রাজধানীবাসীকে।

শুক্রবার ঢাকার মিরপুর, আগারগাঁও ও মহাখালী এলাকার চারটি বাজার ঘুরে এমন চিত্র পাওয়া গেছে।

মিরপুর ২ নম্বর বাজারে আসা ক্রেতারা জানান, গত সপ্তাহে তারা ৩২-৩৫ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ কিনেছেন। কিন্তু এ সপ্তাহে এসে ৪৫-৫০ টাকা গুনতে হচ্ছে।

পেঁয়াজের ‘ঝাঁঝ’ বেড়েছে, খানিক স্বস্তি শাকসবজিতে

কাঁচাবাজারে এমন দরে বিক্রি হলেও মুদি দোকানে পেঁয়াজের দাম বিশেষ করে দেশি পেঁয়াজের আরও কিছুটা বেশি, প্রতি কেজি ৫৫ টাকা। কারওয়ান বাজারের এক কিলোমিটারের মধ্যে থাকা দিলু রোডের দোকানগুলোতে এ দরেই কিনতে হয়েছে এদিন।

পেঁয়াজের দাম আবার বেড়ে যাওয়ার জন্য বরাবরের মত সরবরাহ কম থাকার পুরনো অজুহাতই বিক্রেতাদের।

মিরপুর ২ নম্বর বাজারের দোকানি সালেহ আহম্মেদ বলেন, “আড়তে সরবরাহ কম, বিধায় আমাদের বেশি দামে কিনতে হচ্ছে। কেনা দাম বেশি হলে তো দাম বাড়বেই।”

একই সুরে কথা বলছেন আড়ৎদাররাও। মিরপুরের শাহ আলী বাজারের পেঁয়াজ-রসুন ও আদার পাইকারি ব্যবসায়ী মোহাম্মদ ফারুক বলেন, “পাইকারিতে পেঁয়াজের দাম কেজিতে ৪ টাকা বেড়েছে। এজন্য খুচরা দোকানে দাম বেশি। তবে আদার দাম কম আছে। দেশি আদা ১২০ টাকা, আমদানি করাটা ১৬০ টাকা। রসুন আগের রেইটেই চলতেছে। দেশি রসুন ৭০ থেকে ৮০ টাকা, আর আমদানি করাটা ১২০ টাকা।“

দাম কমেনি চাল-ডাল-আটা ও ভোজ্য তেলের। মিনিকেট চাল মানভেদে আগের সপ্তাহের মতই ৬৮-৭২ টাকা, পাইজাম চাল ৬২-৬৫ টাকা এবং মোটা চাল ৫৫-৬০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে। এ নিয়ে হতাশা প্রকাশ করেছেন ক্রেতারা।

আগারগাঁও তালতলা বাজারে আসা ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী গোলাম মাওলা বলেন, “নতুন ধান উঠেছে, তাও দাম বেশি। চাল ছাড়া তো এক বেলাও চলে না। এইটার দামও না কমলে পরিবার নিয়ে চলা মুশকিল।”

মিরপুরের শাহ আলী বাজারের চাল ব্যবসায়ীরা বলছেন, বাজারে নতুন চালের সরবরাহ আরও বাড়লে শিগগির দাম কমে আসবে।

খোলা আটার কেজি আগের মতই ৬০ থেকে ৬৫ টাকা এবং প্যাকেটজাত আটা কেজি ৭০ থেকে ৭৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

পেঁয়াজের ‘ঝাঁঝ’ বেড়েছে, খানিক স্বস্তি শাকসবজিতে

সংকট কাটেনি চিনির বাজারেও। দোকানগুলোতে প্যাকেটজাত চিনি পাওয়া মুশকিল, খোলা চিনি মিললেও তা ১১০ থেকে ১২০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হতে দেখা গেছে। সয়াবিন তেলের দাম আগের মতই ১৯০ টাকা লিটার আর মসুর ডাল মানভেদে ১২০ থেকে ১৫০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

তবে সপ্তাহের ব্যবধানে আরও কিছুটা স্বস্তি পাওয়া গেছে শীতের সবজির বাজারে। বিক্রেতারা বলছেন, সরবরাহ বাড়ায় কমে এসেছে শীতের সব ধরনের সবজির দাম।

মিরপুর দুই নম্বর কাঁচাবাজের সবজি ব্যবসায়ীরা জানান, শীতের শুরুর সপ্তাহে নতুন আলু যেখানে ১০০ টাকা কেজিতে বিক্রি হয়েছে সেখানে কেজিপ্রতি তা এখন নেমে এসেছে ৪০ থেকে ৫০ টাকায়। শিমের বেলাতেও তাই। টমেটোর দাম কেজিতে কমেছে প্রায় ২০ টাকা। কমেছে বাঁধাকপি- ফুলকপি ও মূলার দামও।

মহাখালী কাঁচাবাজারে আসা ক্রেতা হাসনাঈন বলেন, “সবজির দাম বেশ কমেছে। ব্যাগভর্তি সবজি কেনা যাচ্ছে।“

গত সপ্তাহে কমে আসা নানা জাতের মুরগি ও ডিমের দাম এ সপ্তাহে স্থিতিশীল আছে, যা স্বস্তি দিচ্ছে ক্রেতাদের। প্রতি ডজন ডিম মিলছে ১১০ থেকে ১২০ টাকায়। প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা দরে। অন্যদিকে সোনালি মুরগির কেজি ২৪০ থেকে ২৫০ টাকা।

বাজারভেদে গরুর মাংস ৭০০ থেকে ৭৫০ টাকা এবং খাসির মাংস ৯০০-১০০০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে।

চাষের মাছের দাম কেজিতে ১০-১৫ টাকা কমে আসলেও তার প্রভাব বাজারে খুব বেশি পড়ছে না। তেলাপিয়া মাছ প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ১৯০ থেকে ২০০ টাকায়; পাঙাস ১৯০ টাকায়; সিলভার কার্প ২৪০ থেকে ২৭০ টাকায়; রুই ২৭০ থেকে ৩০০ টাকায়; পাবদা ৩২০০ থেকে ৪০০ টাকায়; চাষের কই ২২০ টাকা; আর চিংড়ি আগের মতই আকারভেদে ৬০০ থেকে ৬৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

বিক্রেতারা বলছেন, মাছের খাদ্যের দাম বেশি থাকায় চাষিরা কম দামে মাছ বিক্রি করছেন না। ফলে দাম বেশিই থাকছে।-বিডি২৪নিউজ

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email
Share on print
Print

শিল্পোন্নয়নে বিশেষ অবদানে স্বাধীনতা পদক পেলেন বিশিষ্ট শিল্পপতি আবদুস সালাম

শিল্পোন্নয়নে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ মহান ‘স্বাধীনতা স্মারক সম্মাননা পদক-২০২৪ পেলেন এশিয়ান গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ট্রেজারার মোহাম্মদ আবদুস সালাম। মঙ্গলবার (২৬

বিস্তারিত »

বাজার নিয়ন্ত্রণে আসছে ৮৩ হাজার টন চাল

দেশের চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে বেসরকারি পর্যায়ে ৩০ প্রতিষ্ঠানকে ৮৩ হাজার মেট্রিক টন সিদ্ধ ও আতপ চাল আমদানির অনুমতি দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) এ ব্যাপারে

বিস্তারিত »

আলুর দাম নিয়ন্ত্রণে এখনই কার্যকর পদক্ষেপ নিন: সুজন

আলু নিয়ে মূল্যবৃদ্ধির সিন্ডিকেট আবার সক্রিয় বলে অভিযোগ করেছেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সাবেক প্রশাসক এবং চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি খোরশেদ আলম সুজন। সোমবার (১৮

বিস্তারিত »

জ্বালানি তেলের দাম কমলো

বিশ্ববাজারের সঙ্গে মিল রেখে দেশের বাজারে সব ধরনের জ্বালানি তেলের দাম কমিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার। নতুন দাম অনুযায়ী, লিটারপ্রতি ডিজেল ও কেরোসিনের বিদ্যমান মূল্য

বিস্তারিত »

‘আগুনের নেতিবাচক প্রভাব পড়বে না বাজারে’

এস আলম গ্রুপের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. সাইফুল আলম মাসুদ বলেছেন, বাজারে সরবরাহ করার জন্য আমাদের কাছে পর্যাপ্ত চিনি রয়েছে। দুই-একদিনের মধ্যে আমরা বাজারে

বিস্তারিত »

আগুন নিয়ন্ত্রণে, তবে পুরোপুরি নেভেনি

চট্টগ্রামের কর্ণফুলীতে এস আলম সুগার মিলের আগুন এখনো পুরোপুরি নেভেনি। কারখানার গুদামে আগুন মঙ্গলবার (৫ মার্চ) সকাল সাড়ে ৭টার দিকে জ্বলতে দেখা গেছে। তবে আগুন

বিস্তারিত »

এস আলম সুগার মিলে ভয়াবহ আগুন

চট্টগ্রামের কর্ণফুলী উপজেলায় এস আলম সুপার রিফাইন্ড সুগার মিলে লাগা আগুন এখনো নিয়ন্ত্রণে আসেনি। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত কারখানাটিতে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার

বিস্তারিত »

আরও কমল ডলারের দাম

দেশের বাজারে আবারও কমেছে ডলারের দাম। নতুন দাম অনুসারে ২৫ পয়সা কমিয়ে ডলারের নতুন দর নির্ধারণ করেছে অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশ লিমিটেড (এবিবি) এবং বাংলাদেশ

বিস্তারিত »

একদিন সময় আসবে যখন ভোক্তারই প্রতিবাদ করবে

বাণিজ্যমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা টিপু মুনশি বলেছেন, জনগণ সিন্ডিকেট করলে অন্য কোনো সিন্ডিকেট আর পাত্তা পাবে না। তিনি বলেছেন, একদিন সময় আসবে, যখন ভোক্তারই প্রতিবাদ করবে।

বিস্তারিত »